,

১১ বছর আয়কর দেননি ট্রাম্প, রিপোর্ট অস্বীকার

যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প তার ব্যবসায় লোকসান দেখিয়ে ১১ বছর কোনো আয়কর পরিশোধ করেননি। অন্যদিকে প্রথম দফায় নির্বাচনের বছর ২০১৬ সালে এবং প্রেসিডেন্সির প্রথম বছরে তিনি মাত্র ৭৫০ ডলার করে ফেডারেল আয়কর পরিশোধ করেছেন। নিউ ইয়র্ক টাইমস এক প্রতিবেদনে এখবর জানিয়েছে।

তার রিয়েলিটি টেলিভিশন প্রোগ্রাম ‘দ্য এপ্রেন্টিস’, অন্যান্য অনুমোদনের খাত ও লাইসেন্স খাত থেকে ৪২ কোটি ৭৪ লাখ ডলার আয় করলেও তিনি লোকসান দেখিয়েছেন ব্যবসায়। ২০১৮ সালে তিনি ৪৩ কোটি ৪৯ লাখ ডলার আয় করলেও ৪ কোটি ৭৪ লাখ ডলার লোকসান দেখিয়েছেন। ওদিকে চুলের পরিচর্যায় তিনি খরচ করেছেন ৭০ হাজার ডলার।

মেয়ে ইভাঙ্কা ট্রাম্পের প্রিয় চুলে পরিচর্যা ও মেকআপে খরচ করা হয়েছে ৯৫ হাজার ৪৬৪ ডলার। নিউ ইয়র্ক টাইমসের এই রিপোর্টকে রবিবার পুরো ভুয়া বলে তা প্রত্যাখ্যান করেছেন ডোনাল্ড ট্রাম্প। এ খবর দিয়েছে অনলাইন ডেইলি মেইল।

এতে বলা হয়, নিউ ইয়র্ক টাইমস ট্রাম্পের আয়কর বিষয়ে ১৮ বছরের তথ্য যাচাই করেছে। তার মধ্যে তারা দেখতে পেয়েছে ১১ বছর তিনি কোনো আয়কর দেননি। রবিবার সন্ধ্যায় এ রিপোর্টের বিষয়ে প্রতিক্রিয়া দেন ট্রাম্প। তিনি বলেন, এটা পুরোপুরি ফেক নিউজ। বানোয়াট খবর। জানিয়েছেন, তিনি আয়কর পরিশোধ করেছেন। তবে এ বিষয়ে সুনির্দিষ্ট কোন তথ্য দেননি।

ট্রাম্পের আইনজীবী অ্যালান গার্টেন বলেছেন, ওই রিপোর্টের সবটা না হলেও বেশির ভাগই অসত্য বলে মনে হচ্ছে। গত এক দশকে প্রেসিডেন্ট ট্রাম্প ফেডারেল সরকারকে ব্যক্তিগতভাবে লাখ লাখ ডলার আয়কর দিয়েছেন। তবে নিউ ইয়র্ক টাইমস বলেছে, তারা যে তথ্য প্রকাশ করেছে তা প্রায় দুই দশকের আয়কর রিটার্নের ডাটা অনুযায়ী। মঙ্গলবার যুক্তরাষ্ট্রে প্রথম দফা প্রেসিডেন্সিয়াল বিতর্ক। এতে মুখোমুখি বিতর্কে অংশ নেবেন ডোনাল্ড ট্রাম্প ও তার প্রতিদ্বন্দ্বী ডেমোক্রেট জো বাইডেন।


     এই বিভাগের আরো খবর