,

মুক্তি পেলেন প্রিন্স তালাল

বন্দীদশা থেকে মুক্তি পেলেন সৌদি প্রিন্স খালেদ বিন তালাল। গত বছর দুর্নীতিবিরোধী অভিযানের সমালোচনা করায় তাকে আটক করা হয়েছিল। তবে তার আটক বা মুক্তির বিষয়ে সৌদির তরফ থেকে আনুষ্ঠানিক কোন বিবৃতি প্রদান করা হয়নি। খবর বিবিসি।

সামাজিক মাধ্যমে খালেদ বিন তালালের স্বজনরা বেশ কিছু ছবি প্রকাশ করেছেন। সেখানে দেখা গেছে পরিবারের সদস্যরা তালালকে স্বাগত জানাচ্ছেন। প্রায় এক বছর ধরে বন্দী ছিলেন তালাল। তিনি বাদশাহ সালমান বিন আব্দুল আজিজ আল সৌদের ভাতিজা।

গত বছরের শেষের দিকে বেশ কয়েকজন প্রিন্স এবং সনামধন্য ব্যবসায়ীকে আটক করে সৌদি। দুর্নীতিবিরোধী অভিযানের অংশ হিসেবে তাদের আটক করা হয়। আটক হওয়া প্রিন্সদের মধ্যে খালেদের ভাই প্রিন্স আলওয়ালেদ বিন তালালও ছিলেন।

সাম্প্রতিক সময়ে সৌদি ভিন্ন মতাবলম্বী সাংবাদিক জামাল খাশোগির হত্যাকাণ্ডের ঘটনায় চাপের মুখে রয়েছে সৌদি আরব। বিশেষ করে ওই হত্যাকাণ্ডের ঘটনায় প্রিন্স মোহাম্মদ বিন সালমানের হাত রয়েছে বলেও অভিযোগ উঠেছে। দুর্নীতিবিরোধী অভিযানের নেতৃত্বেও ছিলেন প্রিন্স সালমান। তার নেতৃত্বেই একসঙ্গে বহু সৌদি প্রিন্সকে আটক করা হয়েছিল।

তালালকে মুক্তি দেয়ার বিষয়ে বিশ্লেষকরা বলছেন, খাশোগি হত্যাকাণ্ডের ঘটনায় সৌদি কর্তৃপক্ষ রাজপরিবারের সদস্যদের সমর্থন আদায় করতে চাচ্ছে। সে কারণেই হয়তো প্রিন্স তালালকে মুক্তি দেয়া হয়েছে।


     এই বিভাগের আরো খবর